Menu

কোমর ও অন্যান্য ব্যথা

বিভিন্ন ব্যথা ও তার আধুনিক চিকিৎসা সম্পর্কে বিশদে জানুন। ফোন করুন +৯১৯৩৩৯৬৫৭৮৫৭

ভারতের শ্রেষ্ঠ পেইন ক্লিনিকঃ এখানে বাংলায় কথা বলুন

আমেরিকার World Institute of Pain আমেদের পুরস্কৃত করেছেন তিনটি বিভাগেঃ ১) বিশ্বামানের ব্যথা চিকিৎসা, ২) ব্যথা চিকিৎসায় গবেষণা ও ৩) ব্যথা চিকিৎসায় প্রশিক্ষণ। 

এই বিশ্বমানের পেইন ক্লিনিকে বাংলায় কথা বলুন|

দরদিয়াঃ দি পেইন ক্লিনিক

বর্তমান ঠিকানায় আমাদের পথ চলা শুরু ২০০৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। কলকাতার তৎকালীন পুলিশ কমিশনার গৌতম মোহন চক্রবর্তী-র হাতে আমাদের উদ্বোধন হয়। আমরা শুধু ব্যথার চিকিৎসায় থেমে থাকি নি। আমরা ১০০০-এর বেশি ডাক্তারদের ব্যথা চিকিৎসায় প্রশিক্ষণ দিয়েছি।

আমাদের লক্ষ্য একটাই- পৃথিবীর কেউ যেন ব্যথার উন্নত চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত না হয়।

২০১০ সালে আমরা World Institute of Pain দ্বারা পুরস্কৃত হই তিনটি বিভাগেই এশিয়ায় প্রথম। বিভাগ তিনটি হলঃ ১) আন্তর্জাতিক মানের ব্যথার চিকিৎসা, ২) ব্যথা চিকিৎসায় গবেষণা এবং ৩) ব্যথা চিকিৎসায় চিকিৎসক -দের প্রশিক্ষণ।

২০১১ সালে Indian Society for Study of Pain ভারতের "শ্রেষ্ঠ পেইন ক্লিনিক" হিসাবে আমাদের পুরস্কৃত করে।

 

হিমাচল প্রদেশের গভর্নর মাননীয়া ঊর্মিলা সিং 

"শ্রেষ্ঠ পেইন ক্লিনিক"​এর মানপত্র এবং স্মারক তুলে দিচ্ছেন। 

আমরা  সর্বপ্রথম

আমরা শুধুমাত্র ব্যথার চিকিৎসাই করি না, আমরা ব্যথা চিকিৎসায় প্রশিক্ষণ দিই আরও অনেক ব্যথার রোগীর চিকিৎসার জন্য।

শুধুমাত্র এশিয়া নয়, ইউরোপ, আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়া থেকে অনেক চিকিৎসক আমাদের কাছে এসেছেন ব্যথা চিকিৎসায় প্রশিক্ষণ -এর জন্য।

ভারতবর্ষে যে সমস্ত হাসপাতালে এখন ওজোন (থেরাপি) চিকিৎসা হয়, আমরা তাদের মধ্যে সর্বপ্রথম এই চিকিৎসা শুরু করি ২০০৪ সালে।

পারকিউটেনিআস  ডিস্কেকটমি এবং নিউক্লিওটমি ভারতবর্ষে আমরা প্রথম শুরু করি ২০০৬ সালে।

এন্ডওস্কপিক ডিস্কেকটমি পূর্ব ভারতে প্রথম শুরু করি আমরা।

ডাঃ দাস ইন্দোনেশিয়ায় বান্দুং শহরে পাদজাদজারান বিশ্ব বিদ্যালয়ের সাথে মিলিত ভাবে ব্যথা চিকিৎসার পাঠক্রম শুরু করেন ২০১১ সাল থেকে।

আগামী ২০১৮ সালের জানুয়ারী মাস থেকে ইথিওপিয়ার সাথে ব্যথা পাঠক্রম শুরু হতে ছলেছে।

 

 

        ডাঃ চিন্ময় রায়, MD, FIPP

প্রধান চিকিৎসক ডাঃ চিন্ময় রায়

 

উনি মাস্টার ডিগ্রির (এম. ডি.) পর দিল্লি এইইমস-এ ছিলেন কিছু বছর। পরে উনি ওমান চলে যান এবং রয়াল হাসপাতালে প্রধান ব্যথা চিকিৎসক হিসাবে কর্মরত ছিলেন।  

বর্তমানে উনি Journal on Recent Advances in Pain-এর সহ-সম্পাদক।

উনি ব্যথা চিকিৎসা শুরু করেন ২০০৯ সাল থেকে এবং বেশ কয়েকটি  জটিল ব্যথা চিকিৎসা পদ্ধতি ভারতবর্ষে প্রবর্তন করেন।

ওনার প্রায় ৪০ টি গবেষণা পত্র দেশ-বিদেশের বিভিন্ন জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। উনি ব্যাথা চিকিৎসা নিয়ে ২ টি গুরুত্বপূর্ণ  বই লিখেছেন। উনি বিভিন্ন ভারতীয় ও বিদেশী প্রতিষ্ঠানে ব্যথা চিকিৎসার শিক্ষক।

 

 

আমাদের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা

ডাঃ মৌসুমি দত্ত   

                      MBBS, DPH, FIPM

ডাঃ দেবজ্যোতি দত্ত

                   MBBS, MD, FIPP

ডাঃ অয়নাংশু নায়ক

               MD, MRCPsych